নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ রণক্ষেত্র দফায় দফায় সংঘর্ষ নিহত ১

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার হাবিবনগড় এলাকার কাঞ্চন-কুড়িল বিশ্বরোড সড়কে আওয়ামী লীগের এমপি গোলাম দস্তগীর গাজী ও কায়েতপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সমর্থিতদের সংঘর্ষে সুমন মিয়া নামে একজন নিহত হয়েছেন। এসময় দুইগ্রুপের সঙ্গে পুলিশের দফায়

দফায় ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া ও সংঘর্ষে সাংবাদিক, পুলিশসহ অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ টিয়ারসেল ও ফাঁকা গুলি বর্ষণ করেন। এসময় পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত সুমন মিয়া (৩৫) উপজেলার পঞ্চবপুর এলাকার মনু মিয়ার ছেলে। সে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতা বলে জানা যায়। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়কে কেন্দ্র করে উপজেলার হাবিবনগড় এলাকার কাঞ্চন-কুড়িল বিশ্বরোড সড়কে কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম রফিক সমর্থিত নেতাকর্মীরা অবস্থান নেয়।
অপর দিকে, তাদের ৫০০ গজ দূরে স্থানীয় এমপি গোলাম দস্তগীর গাজীর (বীর প্রতিক) সমর্থিত নেতাকর্মীরা অবস্থান নেয়। সকাল ১০টা থেকেই উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এছাড়া এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কের উভয় দিকে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।
এসময় দুগ্রুপের সংঘর্ষের আশঙ্কায় পুলিশ উভয়পক্ষের নেতাকর্মীদের ধাওয়া করে। এসময় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ারসেল ও সর্টগানের গুলি বর্ষণ করে। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) ফারুক আহাম্মেদ জানান, আওয়ামী লীগের উভয়পক্ষ যখন মুখোমুখি অবস্থান নেয়, তখন পুলিশ তাদের ধাওয়া করে।